regions online banking, বাংলাদেশে মোবাইল ব্যাংকিং Best 7

online banking gd685d075c 640

regions online banking ও মোবাইল ব্যাংকিং কি এবং ইতিহাস

মোবাইল ফোন বা একটি ট্যাবের মাধ্যমে ব্যাংকিং কার্যক্রমের সকল কিছুর নিয়ন্ত্রণ করতে পারা। এই পদ্ধতির মাধ্যমে গ্রাহক তার নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সকল কিছু মোবাইলের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। গ্রাহণ নিজে ব্যাংকে না গিয়ে যে কোন সময় অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা লেনদেন করতে পারবেন। বিশ্বে প্রথম ১৯৯৯ সালে মোবাইল ওয়াপ পদ্ধতির মাধ্যমে স্মার্ট ফোন নেটওর্য়াক ব্যবহার করে ইউরোপীয়ান ব্যাংকে মোবাইল ব্যাংকিং চালু করে। বাংলাদেশে ২০১০ সালে এই পদ্ধতির যাত্রা শুরু করে ডাচ-বাংলা ব্যাংক। এটি ছাড়াও এই পদ্ধতি সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে ব্র্যাক ব্যাংকের প্রতিষ্ঠান বিকাশ বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে।

regions online banking

regions online banking , Bangladesh

বাংলাদেশে ২০১০ সালে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু হয়। এই পদ্ধতিকে ২৮টি ব্যাংক অনুমোদন দিয়েছেন। এই পদ্ধতি নিয়ে ১৯টি ব্যাংক মাঠ পর্যায়ে কাজ শুরু করেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুসারে প্রতি মাসে ৩৩৩ কোটি টাকা লেনদেন হচ্ছে এই পদ্ধতির মাধ্যমে। এই পদ্ধতির গ্রাহক সংখ্যা হলো দেশের ১৫ শতাংশ মানুষ। যা প্রায় দুই কোটি ৩০ লাখের মত। এতে শতকরা ২ টাকা খরচ হয়। ২০১২ সালে বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু করে। যা দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি প্রতিষ্ঠানে রূপ নিয়েছে। পরে আরও নগত, রকেট, এমক্যাশ, শিওরক্যাশসহ ১৫টির বেশি কোম্পানি এ সেবা দিয়ে আসছে।

regions online banking ও বাংলাদেশ মোবাইল ব্যাংকিং এর বাজার:

regions online banking, মোবাইল ব্যাংকিং সেবা আরো ১০ বছর আগে বাংলাদেশে চালু হয়েছিলো। চালুর পর থেকে অত্যন্ত সহজ লেনদেনের ফলে প্রতিনিয়ত বেড়েছে গ্রাহক সংখ্যা। বর্তমানে দেশে মোট গ্রাহকের সংখ্যা হলো সাড়ে ৯ কোটির মত। প্রতি মাসে এই পদ্ধতিতে লেনদেন হচ্ছে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকার মত। গত এক বছরে এই ক্ষাতে গ্রাহক বেড়েছে সবচেয়ে বেশি ২৬.৩৫ শতাংশ এবং এজন্টে বেড়েছে ৬.২১ শতাংশ। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুসারে, প্রতিদিন এ পদ্ধতিতে ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা লেনদেন হয়।

 

আরো পড়ুন- ChatGPT কি এবং কিভাবে কাজ করে ?

regions online banking

মোবাইল ব্যাংকিং এর সুবিধা ও regions online banking..

এই পদ্ধতি ব্যবহার করে একজন গ্রহাক বর্তমানে এত বেশি সুবিধা পায় যা বর্ণনা করা কঠিন। মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্টে দিনের ২৪ ঘন্টা ও বছরের সব দিন লগইন থাকা যায়। যাতে যে কোন সময় প্রয়োজন মত টাকা লেনদেন করার সুবিধা পাওয়া যায়। বাংলাদেশের মোবাইল ব্যাংকিং পদ্ধতিতে আগে শুধু একই ব্যাংকের মধ্যে লেনদেন করা যেতো।

 

কিন্তু বর্তমানে সকল প্রতিষ্ঠান অন্য ব্যাংকেও লেনদেন করার বিষয়ে একটি সিদ্ধান্তে আসার আভাস দিয়েছে। এতে করে আরো বেশি সুবিধা ভোগ করতে পারবে গ্রাহকরা। ইউটিলিটি বিলগুলো- গ্যাস, পানি ও ফোন বিল খুব সহজে পরিশোধ করা যায়। চেক বইয়ের আবেদন ও চেক পেমেন্ট বাতিল করা যায়। সুদের হার, বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার ইত্যাদি জানা যায়। অ্যাকাউন্ট থেকে খুব সহজে লেনদেনের বিস্তারিত হিসাব সহজে পাওয়া যায়।

 

দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ীদের জন্য মোবাইল ব্যাংকিং আশীর্বাদের মত। এই পদ্ধতি আসর আগে তাদের লেনদেন করতে দীর্ঘ সময় ব্যয় হতো। যা ব্যবসার ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব ফেলতো। মোবাইল ব্যাংকিং আসায় ব্যবসায়ীদের লেনদেনের যেসব প্রতিবন্ধবতা ছিলো সবগুলোর প্রায় সমাধান হয়ে গেছে।

এতে করে ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্র আরো বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন যে কোন অবস্থা তারা দেশের যে কোন প্রান্তে মুহুর্তের মধ্যে টাকা পাঠাতে পারে। নিজেদের মধ্যে পন্য আদান-প্রাদান করতে পারে। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা লেনদেনে খরচ খুব কম তাই ব্যবসার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় অনুঘটক হিসেবে কাজ করছে।

regions online banking

regions online banking এর প্রবৃদ্ধি:

দেশের সকল শ্রেণির মানুষকে অর্থিক সেবার আওয়ায় আনতে এজেন্ট ব্যাংকিং এর কার্যক্রম হাতে নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’। এতে করে গ্রামের সাধারণ মানুষ যাদের কোন ব্যাংকে অ্যাকউন্ট নেই তারাও প্রযুক্তি নির্ভর ব্যাংক ব্যবস্থাপনার সাথে যুক্ত হবে। এতে ব্যাংক ব্যবস্থায় অল্প খরচে গ্রাহকদের দ্রুত, সাশ্রয়ী ও নিরাপদ প্রযুক্তিনির্ভর ব্যাংকিং সুবিধা দিতে পারছেন প্রতিষ্ঠানগুলো।

এই পদ্ধতির প্রসারের ফলে প্রান্তিক পর্যায়ে ব্যাংক শাখা না থাকা সত্ত্বেও বৈধ পথে রেমিট্যান্স আহরণের সুযোগ তৈরি হয়েছে। এতে করে দেশীয় সকল অর্থ দ্রুত গচ্ছিত না থেকে লেনদেনর মধ্যে থাকার ফলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ব্যবহার করতে পারছে। ফলে দেশের অর্থনীতি আরো বেশী গতিশীল হচ্ছে।

 

মোবাইল ব্যাংকিং ও regions online banking অনেক টা আশীর্বাদ মতো, বর্তমানে আমরা মুহুর্তের মধ্যে টাকা দেশের যেকোনো প্রান্তের স্থানান্তর করতে পারছি। খুব নিরাপদে সেই টাকা আমরা গ্রহণও করতে পারছি। সব মিলিয়ে মোবাইল ব্যাংকিং দারুণ এক ব্যাংকিং সেবার নাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *